এই অর্ডার গুলো কে এক্ষুনি ‘না’ বলুন

এই অর্ডার গুলো কে এক্ষুনি ‘না’ বলুন

এই অর্ডার গুলো কে এক্ষুনি ‘না’ বলুন

“হ্যাঁ, টাকা তো দরকার ই!”

“নতুন নতুন অর্ডার না নিলে শিখবো কি করে?”

“ক্লায়েন্টকে খুশি না করলে ভালো রিভিউ কি করে পাবো?”

আপনি কেক নিয়ে ব্যবসা করছেন? আমি জানি আপনার এই প্রশ্নগুলো শতভাগ সঠিক। কিন্তু! তারপরও কিছু ‘কিন্তু’ থেকে যায়। সব ক্লায়েন্টের ক্ষেত্রেই কি এই এসব চিন্তা থেকে অর্ডার কনফার্ম করে ফেলা উচিত?

কিছু কাস্টমার দের থেকে অর্ডার নেওয়ার ক্ষেত্রে ‘না’ বলাই শ্রেয়। যেহেতু ব্যবসাটি আপনার, পটেনশিয়াল কাস্টমার কে না বলার অধিকার ও আপনার আছে।

“তাহলে কোন কাস্টমার দের থেকে অর্ডার নেওয়া উচিত না?”

হ্যাঁ,  আপনি হয়তো ইতোমধ্যে এরকম কাস্টমার কে পেয়েও গিয়েছেন। আসুন আমরা একটু দেখে নেই কেন এমন অর্ডার নেওয়ায় আপনার ব্যবসার জন্য ভালোর থেকে খারাপ হবার সম্ভাবনাই বেশি।

🔹 এলার্জি এবং ডায়েটারি রিকোয়েস্টঃ

এমন অনেক পোস্ট দেখা যায় ফেসবুক গ্রুপগুলোতে,”আমার এলার্জি এবং ডায়েটারি সংক্রান্ত কিছু রেসিপি দরকার। কোন রেসিপি টি ফলো করলে ভালো হবে?”

শারিরীক সমস্যা গুলো খুবই সেনসিটিভ ব্যাপার।  কোন কোন সময় মানুষের জীবন বিপন্ন হওয়ার সম্ভাবনাও থাকে। তাই পুরোপুরি স্টাডি না করে কিংবা নিউট্রিশনিস্টের পরামর্শ ছাড়া না এগোনোর পরামর্শই আমি দিবো।

আপনি যদি এইদিক গুলো তে এক্সপার্ট না হোন এবং এই ব্যাপারে আপনার কোন রকম আইডিয়া না থাকে, তাহলে এসব অর্ডার আপনি ছেড়েই দিন। মনে রাখবেন, ফেসবুকের কিছু কমেন্ট বা ইউটিউবের কিছু ভিডিও আপনাকে কখনোই একটি বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত ধারণা দিবে না, নানান জনের নানান কথায় আপনি উল্টো বিভ্রান্ত হবেন। বরং ভুল করে ফেলার সম্ভাবনাই এখানে বেশি।

🔹 যে ধরনের কেক বানানোতে আপনি এক্সপার্ট নাঃ

কেক বানানোর সাথে একটা শব্দ ওতোপ্রোতো ভাবে জড়িত – আর সেটা হলো “অধ্যাবসায়”।

practice করেই আপনি এই পর্যায়ে এসেছেন।কিন্তু প্রথম দিন এর আপনার আউটপুট আর এখনের আউটপুট কি এক রকম?

তাই কারো রিকোয়েস্ট এ প্রথম বা দ্বিতীয় বার একদম নতুন কিছু ট্রাই করতে গেলে আপনার সমূহ বিপদ! আপনি অনেক বেশি চাপ নেবেন কিন্তু হয়তো আশানুরূপ ফল পাবেন না। এর অর্ধেক চাপ নিয়ে অর্ধেক সময়ে আপনি যেটায় এক্সপার্ট,, সেটা করে ফেলতে পারবেন। তাহলে হিসাব করে দেখুন,, আপনার per unit costing টাও কিন্তু এখানে বেশি!

হ্যাঁ, একজন কেক ডিজাইনার হিসাবে আমি আপনার নতুন নতুন চেষ্টা গুলো কে সাধুবাদ জানাই, এটা না করলে আপনার উন্নতি ও হবে না। তবে সেটা শুরুতেই ক্লায়েন্টের ওপর না করাই নিরাপদ।

আপনি যদি নির্দিষ্ট কোন টাইপের কেক ডিজাইনে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ না করেন তাহলে বোধহয় আপনার আগে সেটির উপর কাজ করাই ভালো, সময় নিয়ে শিখুন যাতে আপনি গ্রাহকের কাছে প্রডাক্ট টি বিক্রি করতে আত্মবিশ্বাসী হন।

পাঠক,আশা করি আপনাদের সামনে আরো কিছু বিষয় নিয়ে আবার হাজির হবো পর্ব ২ এ।

সে পর্যন্ত আমাদের সাথেই থাকুন, আর কমেন্ট করে আপনার অভিজ্ঞতা ও জানাতে ভুলবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *